যশোরের ব্যাস্ততম এলাকায় ব্যাবসাহীকে গলাকেটে হত্যা।

যশোর শহরে ব্যস্ত এলাকায় এক ব্যবসায়ীকে গলা কেটে হত্যা করেছে অজ্ঞাত হামলাকারীরা।

মঙ্গলবার সন্ধ্যায় জজ কোর্ট এলাকায় এ ঘটনা ঘটে বলে কোতয়ালি থানার এসআই খালেদুর রহমান জানান।

নিহত মহিদুল হক সাফা (৩৮) যশোরের শার্শা উপজেলার বেনাপোলের ধান্যখোলা গ্রামের উত্তরপাড়ার নবিউদ্দিনের ছেলে।

এসআই খালেদুর রহমান প্রত্যক্ষদর্শীর বরাত দিয়ে জানান, সন্ধ্যা ৭টার দিকে মহিদুল হক সাফা তার ব্যবসায়ী অংশীদার সেলিম জাবেদের ছোট ভাই মোতালেব হোসেন টুটুলসহ জজ কোর্টের সামনে একটি কম্পিউটার কম্পোজের দোকানের সামনে এসে দাঁড়ান।

প্রত্যক্ষদর্শী মোতালেব হোসেন টুটুল বলেন, “আমরা সেখানে যাওয়ার সঙ্গে সঙ্গে দুই যুবক সাফার পেছনে আসে এবং একজন ধারালো অস্ত্র দিয়ে তার গলায় টান দেয়।

“তিনি চিৎকার করলে আশেপাশের লোকজন তাকে নিয়ে যশোর জেনারেল হাসপাতালে যান। চিকিৎসাধীন অবস্থায় সন্ধ্যা সাড়ে ৭টার দিকে তার মৃত্যু হয়।”

হাসপাতালের চিকিৎসক মাসুদুর রহমান মাসুদ বলেন, ধারালো অস্ত্রের আঘাতে তার শ্বাসনালী কেটে গেছে। এ কারণে তার মৃত্যু হয়েছে বলে ধারণা করা হচ্ছে।

যশোর কোতয়ালি থানার ওসি অপূর্ব হাসান জানান, সাফা বেনাপোলের মোটর যন্ত্রাংশ ব্যবসায়ী। যশোরেও তার ব্যবসায় রয়েছে। বাড়ি শার্শার বেনাপোল হলেও তিনি যশোর শহরের আরএন রোডে বসবাস করতেন।

You May Also Like

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *