শেখ হাসিনার সাহসী সিদ্ধান্ত: ঝাঁকে ঝাঁকে ধরা পড়ছে দূর্নীতিবাজ

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা দূর্নীতির বিরুদ্ধে জিরো টলারেন্স নীতি ঘোষনা দেওয়ার পর সারাদেশে ঝাঁকে ঝাঁকে ধরা পড়ছে দূর্নীতিবাজ সরকারী কর্মকর্তা কর্মচারী।এরই মধ্যে দুর্নীতির অভিযোগে ব্যাংকার, সার্ভেয়ার ও ইউনিয়ন পরিষদের (ইউপি) চেয়ারম্যান এমনকি দুদক কর্মকর্তাও দুর্নীতির অভিযোগে আটকে গেছেন। দেশব্যাপী দুর্নীতি বিরোধী চলমান এই অভিযানকে দেশবাসী সাধুবাদ জানিয়েছেন। এমনকি  যুক্তরাষ্ট্র সফররত বাংলাদেশের পররাষ্ট্র সচিব শহিদুল হক জানান, মঙ্গলবার ওয়াশিংটন ডিসিতে মার্কিন পররাষ্ট্র দপ্তরের বিভিন্ন পর্যায়ের কর্মকর্তাদের সঙ্গে বৈঠককালে বাংলাদেশ সরকারের প্রশংসাও করা হয়েছে দেশটির পক্ষ থেকে।

দুদক জানায়, বিভিন্ন অপরাধে গত ২৪ ঘন্টায় বড় ধরনের সফল অভিযান চালানো হয়েছে। ঘুষ নেওয়ার সময় ঘুষের ১০ হাজার টাকাসহ হাতেনাতে কিশোরগঞ্জ সদর উপজেলার ভূমি অফিসের সার্ভেয়ার মো. গিয়াস উদ্দিনকে নিজ দপ্তর থেকে গ্রেপ্তার করা হয়। মাঠ জরিপে একটি ভুল সংশোধন করতে ওই সার্ভেয়ার এক ব্যক্তির কাছে ৫০ হাজার টাকা ঘুষ দাবি করেন। ওই ব্যক্তি দুদকে অভিযোগ করলে সব আইনি প্রক্রিয়া শেষে ফাঁদ পেতে সার্ভেয়ারকে গ্রেপ্তার করা হয়। এই ঘটনায় কিশোরগঞ্জ সদর থানায় একটি মামলা করেছে দুদক।অন্যদিকে বিভিন্ন ভুয়া ব্যক্তি বা প্রতিষ্ঠানের নামে জাল-জালিয়াতির মাধ্যমে ২ কোটি ৫৫ লাখ ৭ হাজার টাকা ঋণ দেখিয়ে আত্মসাতের মামলায় সোনালী ব্যাংকের গোপালগঞ্জের কাশিয়ানি উপজেলার ভাটিয়াপাড়া শাখার কর্মকর্তা আকতার হোসেনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। এ ঘটনায় ২০১৭ সালের ২৯ নভেম্বর কাশিয়ানি (গোপালগঞ্জ) থানায় দুদক একটি মামলা করে।

এর আগে মঙ্গলবার দুর্নীতির অভিযোগে দুর্নীতি দমন কমিশনের (দুদক) পরিচালক ফজলুল হককে সাময়িক বরখাস্ত করা হয়েছে।

বরিশালের বন্দর থানার এজাহারভুক্ত আসামি বরিশাল সদর উপজেলার ৮ নম্বর চাঁদপুরা ইউপি চেয়ারম্যান মো. আমানুল্লাহকে বরিশাল শহরের চৌমাথা এলাকা থেকে গ্রেপ্তার করা হয়। তাঁর বিরুদ্ধে ভিজিডির চাল সংশ্লিষ্টদের না দিয়ে ১ লাখ ৮২ হাজার ৪২৬ টাকা আত্মসাতের অভিযোগে মামলা রয়েছে। গত বছরের ২৭ নভেম্বর ওই মামলা করা হয়।

দুদক সূত্র জানায়, জালিয়াতির মাধ্যমে প্রায় ৮ কোটি আত্মসাতের দায়ে বেসিক ব্যাংকের দুই উপ মহাব্যবস্থাপকসহ (ডিজিএম) ১৩ জনের বিরুদ্ধে মামলা করেছে দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক)। বুধবার রাজধানীর গুলশান থানায় দুদকের উপ-সহকারী পরিচালক মোহাম্মদ জিন্নাতুল ইসলাম বাদী হয়ে সংস্থাটির জনসংযোগ কর্মকর্তা প্রণব কুমার ভট্টাচার্য্য এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

অন্যদিকে দুর্নীতির অভিযোগে বরখাস্ত স্বাস্থ্য অধিদফতরের  হিসাবরক্ষক আবজাল হোসেনের সব সম্পদ জব্দ করার নির্দেশ দিয়েছেন আদালত। দুর্নীতি দমন কমিশনের (দুদক) আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে মঙ্গলবার (২২ জানুয়ারি) ঢাকার বিশেষ জজ আদালতের ইমরুল কায়েস এ আদেশ দেন।  বিষয়টি জানিয়েছেন দুদকের উপ-পরিচালক ও জনসংযোগ কর্মকর্তা প্রণব কুমার ভট্টাচার্য্য।

এছাড়া ১৩ কোটি টাকা আত্মসাতের অভিযোগে দায়ের করা মামলায় চট্টগ্রামের পূবালী ব্যাংকের চকবাজার শাখার তিন কর্মকর্তাকে রিমান্ডে নিয়ে জিজ্ঞাসাবাদের অনুমতি দিয়েছেন আদালতের বিচারক। বুধবার দুদকের আবেদনের প্রেক্ষিতে এ নির্দেশ দেয় চট্টগ্রামের একটি আদালত।

You May Also Like

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *